ফিডার এবং ট্রান্সমিশন লাইন প্রোটেকশন

0

ভূমিকাঃ

বৈদ্যুতিক সিস্টেমে অন্যান্য ডিভাইস সমূহকে যত সহজে প্রটেকশন দেয়া যায় তত সহজে ফিডার এবং ট্রান্সমিশন লাইন প্রোটেকশন দেয়া যায় না। কেননা ফিডার বা ক্যাবলের দৈর্ঘ্য, ক্যাপাসিট্যান্স কারেন্ট এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ফিডার আরক্ষ ব্যবস্থা বেশ জটিল। এছাড়াও ফিডারে ওভারলোড জনিত ত্রুটি দেখা যায়। বৈদ্যুতিক পাওয়ার সিস্টেমে সাধারণত তিন ধরনের ফিডারের প্রচলন আছে। যথা–

  • রেডিয়াল ফিডার
  • প্যারালাল ফিডার
  • রিং মেইন ফিডার।

ফিডার এবং ট্রান্সমিশন লাইন প্রোটেকশনের বিভিন্ন পদ্ধতিগুলো নিম্নরূপ–

  • ওভার কারেন্ট প্রোটেকশন
  • ডিসট্যান্স প্রোটেকশন
  • পাইলট ওয়্যার রিলে প্রোটেকশন।




ফিডারের টাইম গ্রেডেড আরক্ষ ব্যবস্থাঃ

টাইম গ্রেডেড আরক্ষ ব্যবস্থার বিভিন্ন অবস্থানে ব্যবহৃত রিলের সময় নির্ধারণ এমন ভাবে করা হয় যেন তাৎক্ষণিকভাবে কোনো ক্ষুদ্র অংশে ফল্ট দেখা দিলে টাইম গ্রেডেড রিলে সাথে সাথে ত্রুটিপূর্ণ ক্ষুদ্র অংশকে সরবরাহ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। রেডিয়াল এবং প্যারালাল ফিডার প্রোটেকশনে টাইম গ্রেডেড আরক্ষ ব্যবস্থা প্রয়োগ করা হয়।

রেডিয়াল টাইম গ্রেডেড আরক্ষ ব্যবস্থাঃ

রেডিয়াল সিস্টেমে দুটি বা তিনটি সাব-স্টেশন সিরিজে কানেকশন করা থাকে। তাছাড়া রেডিয়াল ফিডার ব্যবস্থার বৈশিষ্ট্য হলো, জেনারেটর বা সরবরাহ প্রান্ত থেকে পাওয়ার শুধুমাত্র লোডের দিকে একই ডিরেকশনে প্রবাহিত হয়। এ ব্যবস্থার প্রধান অসুবিধা হলো ত্রুটি সংঘটিত হওয়ার মুহূর্তে গ্রহণকারী প্রান্তে সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখা সম্ভব হয় না, যা কাম্য নয়। এ অসুবিধা দুরি করনের জন্য টাইম গ্রেডেড আরক্ষ ব্যবস্থায় নিম্নোক্ত দুই ধরনের রিলে ব্যবহৃত হয়ে থাকে- (ক) ডেফিনিট টাইম রিলে (খ) ইনভার্স টাইম রিলে

(ক) ডেফিনিট টাইম রিলে ব্যবহার করে আরক্ষ ব্যবস্থাঃ

এ ব্যবস্থায় প্রতিটি রিলের অপারেটিং টাইম নির্ধারিত এবং অপারেটিং কারেন্ট ভিন্ন মানের হয়ে থাকে। ওভার কারেন্ট রিলে গুলোর টাইম এমনভাবে সমন্বয় করা হয়, যেন জেনারেটিং স্টেশন থেকে সবচেয়ে বেশি দূরের রিলের টাইম সেটিং সবচেয়ে কম হয়ে থাকে।

চিত্র অনুযায়ী রিলে ‘ঘ’ এর অপারেটিং টাইম যখন ০.৫ সেকেন্ড, তখন অন্যান্য রিলে গুলোর টাইম ডিলে ক্রমান্বয়ে ০.৫ সে. করে বৃদ্ধি করা হয়েছে। এখানে টাইম ডিলে রিলে বলতে সার্কিট ব্রেকারের টাইম ধরা হয়েছে। সাধারণত টাইম ডিলে ০.২৫ সে. থেকে ০.৫ সে. এর মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখা হয়। এখানে লক্ষণীয় যে, রিলে গুলোর টাইম সেটিং এর ধাপ সঠিক হতে হবে। যদি ‘ঘ’ ও ‘ঙ’ অংশে ফল্ট দেখা দেয় তাহলে ‘ঘ’ এর সার্কিট ব্রেকার ট্রিপ করে এ অংশকে সরবরাহ থেকে আলাদা করবে। কিন্তু অন্যান্য রিলে গুলোর অপারেটিং টাইম বেশি বিধায় সেগুলো একই সময়ে অপারেট করবে না। যদি ‘ঘ’ এর রিলে ট্রিপ করতে ব্যর্থ হয় তবে ‘গ’ রিলে টাইম ডিলে ০.৫ সে. অতিক্রম হবার পর ১ সে. পরে অপারেট করে ত্রুটিযুক্ত অংশকে সরবরাহ থেকে বিচ্ছিন্ন করবে। যদি শুধু ট্রিপ কয়েল ব্যবহৃত হয় তবে অনেক সময় ট্রানজিয়েন্ট ওভার ভোল্টেজ এর কারণে অহেতুক রিলে অপারেট করতে পারে। এর জন্য ট্রিপ কয়েল এর প্যারালালে টাইম লিমিটিং ওভার কারেন্ট ফিউজ লাগানো থাকে।

(খ) ইনভার্স টাইম রিলে ব্যবহারঃ

এ ধরনের রিলের অপারেটিং টাইম, অপারেটিং কারেন্টের সাথে ব্যস্তানুপাতিক হয়। অর্থাৎ কারেন্ট যতবেশি বৃদ্ধি পাবে, রিলে তত তাড়াতাড়ি অপারেট করবে। এ ব্যবস্থায় ফল্ট পয়েন্ট থেকে জেনারেটিং স্টেশনের দিকে অগ্রসর হলে ফল্ট কারেন্ট বৃদ্ধি পায় এবং সেই অনুসারে রিলে অপারেট করে।

 

প্যারালাল ফিডারে আরক্ষ ব্যবস্থাঃ

ট্রান্সমিশন ক্যাপাসিটি বর্ধিত করার জন্য দুটি ফিডার প্যারালালে সংযুক্ত করা হয়। ফিডার দুটির এক প্রান্তে পাওয়ার সরবরাহ দেয়া হয়। এ ধরনের সরবরাহ ব্যবস্থায় একটি ফিডার ত্রুটি যুক্ত হলে এটিকে সরবরাহ ও সুস্থ ফিডার থেকে পৃথক করা হয় এবং সুস্থ ফিডারের মাধ্যমে লোডে পাওয়ার সরবরাহ নিরবচ্ছিন্ন রাখা হয়। প্যারালাল ফিডারে কোন অংশে ত্রুটি দেখা দিলে উক্ত স্থানে উভয় দিক থেকে কারেন্ট প্রবাহিত হয় বিধায় শুধুমাত্র ওভার কারেন্ট রিলের সাহায্যে আরক্ষ ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করা যায় না। ত্রুটিপূর্ণ স্থানে যেন স্বাভাবিক প্রবাহের উল্টো দিক থেকে কারেন্ট প্রবাহিত হতে না পারে সেজন্য ডিরেকশনাল রিলের সাহায্যে উলটো দিকের কারেন্ট প্রবাহকে বাধা দেওয়া হয়। এজন্য জেনারেটিং স্টেশনের কাছাকাছি ওভার কারেন্ট রিলে এবং সাব-স্টেশনের কাছাকাছি রিভার্স পাওয়ার রিলে প্রতিটি ফিডারে সংযোগ করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here