ইন্ডাকশন মোটর সম্পর্কে বিস্তারিত

0

হ্যালো পাঠকবর্গ আজকে আমরা ইন্ডাকশন মোটর সম্পর্কে জানবো।

ইন্ডাকশন মোটরঃ ১৮৮৮ সালে বিজ্ঞানী নিকোলা টেসলা ইন্ডাকশন মোটর আবিষ্কার করেন। যে মোটর ইন্ডাকশন নীতির উপর ভিত্তি করে ঘুরে তাকে ইন্ডাকশন মোটর বলে। সাধারণত কন্ডাকশন মোটরের মোটরে বৈদ্যুতিক পাওয়ার ব্রাশ ও কম্যুটেটরের মাধ্যমে রোটরে প্রদান করা হয়। কিন্তু ইন্ডাকশন মোটরের স্টেটরকে এসি সরবরাহ দেয়া হয়। ফলে এতে রোটেটিং ম্যাগনেটিক ফিল্ডের সৃষ্টি হয়। রোটর কন্ডাকটর এই রোটেটিং ফ্লাক্সকে কর্তন করে। ফলে ফ্যারাডের ইলেক্ট্রোম্যাগনেটিক ইন্ডাকশন নীতি অনুসারে রোটরে ভোল্টেজ আবিষ্ট হয়। রোটরের দুই প্রান্ত শর্ট করা থাকে বিধায় ইনডিউসড ভোল্টেজের জন্য কারেন্ট প্রবাহিত হয় এবং রোটরে টর্ক উৎপন্ন হয়। ফলে স্টেটরে চুম্বক বলরেখা যেদিকে ঘুরে রোটরেও সেই দিকে ঘুরতে আরম্ভ করে। এ মোটরের রোটরের গতিবেগ সিনক্রোনাস গতি অপেক্ষা সব সময় কিছুটা কম থাকে। 

                  ট্রান্সফরমার সম্পর্কে জানুন

প্রকারভেদঃ

  • সিংগেল ফেজ ইন্ডাকশন মোটর
  • থ্রি ফেজ ইন্ডাকশন মোটর
  • স্কুইরেল কেজ টাইপ
  • স্লিপ রিং
  • টাইপডাবল স্কুইরেল কেজ টাইপ

ব্যবহারঃ

  • গৃহস্থালির কাজ যেমন- সেলাই কল, পাখা, কাপড় কাচার মেশিন ইত্যাদি।
  • মেশিন টুলস পরিচালনায় যেমন, ড্রিল মেশিন, ভ্যাকুয়াম ক্লিনার।
  • বাসা বাড়ির পানি তোলার পাম্প মেশিন।
  • ফুড/ড্রিনক্স মিক্সচার মেশিন।
  • ক্রেন, লিফট পরিচালনা।

ব্যবহারে সুবিধাঃ

  • গঠন সহজ সরল বলে এটি মজবুত এবং দীর্ঘস্থায়ী হয়।
  • এর কর্মদক্ষতা বেশি এবং স্বাভাবিক রানিং কন্ডিশনে এতে ব্রাশের প্রয়োজন নেই।
  • এর ফ্রিকশন লস কম।
  • উন্নত পাওয়ার ফ্যাক্টরে ভাল দক্ষতায় কাজ করে।
  • একে স্টার্ট দেয়া খুবই সহজ এবং সরল।
  • এতে কোন ডিসি এক্সাইটারের প্রয়োজন হয় না

গতি নিয়ন্ত্রণ করার উপায়ঃ

  • মোটরের সাপ্লাই ভোল্টেজ কম বেশি করে।
  • ফ্রিকুয়েন্সি পরিবর্তন করে।
  • স্টেটরের পোল সংখ্যা পরিবর্তন করে।
  • রোটর সার্কিটের রেজিস্ট্যান্স পরিবর্তন করে।
  • ক্যাসকেড কন্ট্রোল ম্যাথড।

ইন্ডাকশন মোটরের স্লিপঃ ইন্ডাকাশন মোটর এর রোটর সর্বদা সিনক্রোনাস স্পিড এর চেয়ে কম গতিতে ঘুরে। কারণ যদি রোটর সিনক্রোনাস স্পিডে ঘুরে তবে ফ্লাক্স তার কন্ডাকটর গুলিকে কর্তন করতে পারে না। ফলে রোটর সার্কিট এ কারেন্ট এবং ফল স্বরূপ টর্ক উৎপন্ন হয় না এবং মোটরটি থেমে যায়। মোটরের সিনক্রোনাস স্পিড এবং রোটর স্পিড এর পার্থক্যকে সিনক্রোনাস স্পিড এর অনুপাতে প্রকাশ করলে তাকে স্লিপ বলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here